তালেবানের কাবুল দখল, বাইডেনের পদত্যাগ চাইলেন ট্রা,ম্প

আফগানি,স্তানে তালেবানের হাতে রাজধানী কাবুলের পতন হওয়ায় যু,ক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে পদত্যাগ করতে বললেন তাঁরই পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রা,ম্প। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রা,ম্পের অভিযোগ, বাইডেনের কারণে মার্কিন বাহিনীকে শূন্য হাতে আফগানিস্তান ছাড়তে হয়েছে। তিনি ক্ষমতায় থাকলে দেশটি থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার আরও সফলতার সঙ্গে হতো। খবর আল–জাজিরার।

এক বিবৃতিতে রোববার বাইডেনের উদ্দেশে ট্রা,ম্প বলেন, ‘আফগানিস্তানে যা ঘটতে দিয়েছেন, তাতে অপমানবোধ থেকে তাঁর (বাইডেন) পদত্যাগ করা উচিত।’

ট্রাম্পের আমলে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। সেনা প্রত্যা,হার করতে আফগান তালেবানের সঙ্গে চুক্তি সই হয় ওই সময়। তবে বাইডেন ক্ষমতায় এসে আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানি,স্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার পুরোপুরি শেষ করার সময়সীমা নির্ধারণ করেন। শুরু হয় প্রত্যাহার কার্য,ক্রম। আর তখন থেকেই তালেবান যোদ্ধারা আফগানিস্তানের বিভিন্ন এলাকার নিয়,ন্ত্রণ নিতে শুরু করে।

এ ধারাবাহিকতায় গতকাল রোববার কাবুলে প্রবেশ করে তালেবান যোদ্ধারা। এ সময় আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি দেশ ছেড়ে তাজিকিস্তানের উদ্দেশে রওনা হন। এর পরপরই আফগানি,স্তানের প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেসের নিয়,ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করে তালেবান বাহিনী।

এখন আফগান সরকার একটি ‘অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের’ হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবে বলে শোনা যাচ্ছে। সে বিষয়ে তালেবান ও সরকারের মধ্যে আলোচনাও শুরু হয়েছে। রয়টার্সের খবরে বলা হয়, এ অন্ত,র্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে দেশটির সাবেক স্ব,রাষ্ট্রমন্ত্রী ও কূটনীতিক আলী আহমাদ জালালির নাম শোনা যাচ্ছে।

তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহিন রোববার বিবিসিকে বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর হবে বলে তাঁরা আশা করছেন। কাবুলের জনগণের জানমাল নিরাপদ রাখা এবং নারীদের অধিকার রক্ষার পাশাপাশি গণমাধ্যমক,র্মী ও কূটনীতিকদের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার কথাও বলেছেন তিনি।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যু,ক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে ভয়াবহ হামলার পর আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে ধরতে আফগানিস্তানে অভিযান চালায় যু,ক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বহুজাতিক বাহিনী। এরপর দুই দশকের বেশি সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন বাহিনী এবং পরে তাদের সহায়তায় গড়ে ওঠা আফগান সামরিক বাহিনীর স,ঙ্গে তালেবানের যুদ্ধ চলে আসছিল। গত ১ মে আমেরিকান সৈন্য প্রত্যাহার শুরু হওয়ার পর থেকে তালেবানের অগ্রযাত্রা শুরু হয়।

তবে এত দ্রু’ত কাবুলের পতন হবে—এমনটা হয়তো ভাবতে পারেননি কেউ। বিষেশত, বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার খরচ করে মার্কিন অস্ত্রে সজ্জিত আফগান বাহিনীর মনোবল তালেবানের সামনে এভাবে ভেঙে পড়বে, এটাই চিন্তার বাইরে ছিল যু,ক্তরাষ্ট্রের। তাই তো তালেবানের কাবুল দখল ও আশরাফ গনির দেশত্যাগের খবরের পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন স্বীকার করেন, তালেবানের দেশ দখল তাঁদের ধারণার চেয়ে দ্রুত হয়েছে।

About atiyar Rahman

Check Also

কাতারে প্রচন্ড গরমে কাজ করছিলেন শ্রমিক, কফিশপে ডেকে নিলেন নারী

কাতারের একজন অপরিচিত ও অজ্ঞা’ত নারীর সামাজিক কাজের ব্যাপক প্রশংসা হচ্ছে অনলাইনে। এই গরমে একজন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *